বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

গ্লুকোমা নিয়ে সচেতনা লক্ষ্যে লোহাগাড়া চক্ষু হাসপাতালের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত : ৬:৪৪ পূর্বাহ্ন বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

 

গ্লুকোমাকে নীরব ঘাতক বা সাইলেন্ট কিলার বলা হয়। তাই আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। জনসচেতনতা সৃষ্ঠির লক্ষ্যে গ্লুকোমা নিয়ে লোহাগাড়া ডায়াবেটিক হাসপাতাল সংলগ্ন লোহাগাড়া চক্ষু হাসপাতালের উদ্যোগে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২২ মার্চ সকালে উপজেলা বিআরডিবির হল রুমে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মুহাম্মদ আহসান হাবীব জিতু।

লোহাগাড়া উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান, লোহাগাড়া চক্ষু হাসপাতাল, লোহাগাড়া ডায়বেটিস হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা,সমাজকল্যাণ পরিষদের নির্বাহী সদস্য সমাজকর্মী মুুহাম্মদ আরমান বাবু রোমেলের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্হিত ছিলেন লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্হ্য প.প কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ হানিফ।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্যে রাখেন লোহাগাড়া ডায়াবেটিস হাসপাতালের ডায়াবেটিস চিকিৎসক ডাঃ সালেক আহমদ মুন্না এবং লোহাগাড়া চক্ষু হাসপাতালের চক্ষু রোগের চিকিৎসক ডাঃ এ এইচ এম মঈনুদ্দিন।

মতবিনিময় সভায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনে লোহাগাড়ার ফিল্ড সুপার-ভাইজার মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ, মডেল অফিসার মুহাম্মদ রাশেদুল হক, লোহাগাড়া উপজেলা মডেল মসজিদের খতিব ও ফয়েজ শফি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আবদুল গফুর ।

লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্হ্য প.প কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ হানিফ বলেছেন,দেশের ৯০ থেকে ৯৫ ভাগ মানুষ গ্লুকোমা রোগ সম্পর্কে জানেননা। গ্লুকোমা রোগের তেমন কোনো উপসর্গ থাকে না। এটি নিরবে চোখকে অন্ধত্বের দিকে নিয়ে যায় বলে গ্লুকোমাকে নিরব ঘাতক বা ‘সাইলেন্ট কিলার’ বলা হয়। এ রোগে আক্রান্ত হলে দৃষ্টিশক্তি ধীরে ধীরে হারিয়ে যায়। তাই প্রত্যেকের উচিত নিয়মিত চোখের প্রেসার, দৃষ্টিশক্তির পরিসীমা পরিমাপ, অপটিক নার্ভ, রেটিনা ও কর্নিয়ার পুরুত্ব মাপা এবং ইউবিএম পরীক্ষা করা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইউএনও মুুহাম্মদ আহসান হাবীব জিতু বলেছেন, এ মাস স্বাধীনতার মাস। মহান স্বাধীনতার মাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। দেশ এখন অনেক এগিয়ে। আমরা মুসলমান। সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে একসাথে বসবাস করবো। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন। তার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে সুন্দর একটি মডেল মসজিদ উপহার দিয়েছেন। এখানে ইসলামের সকল জ্ঞান সম্পর্কে জানতে পারবো। সবাই নামাজ আদায় করবো। ইসলামে শান্তির কথা বলা হয়েছে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মুক্ত দেশ গড়ার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিচক্ষণায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। লোহাগাড়ায় এ প্রথম চক্ষু হাসপাতালে প্রতিষ্ঠা করায় হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা আরমান বাবু কে ধন্যবাদ জানান।

এছাড়াও মতবিনিময় সভায় লোহাগাড়ার বিভিন্ন এলাকার ওলামাগণ, জনপ্রতিনিধি,সাংবাদিক, শিক্ষার্থী ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা উপস্হিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভা শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় মোনাজাত পরিচালনা করেন লোহাগাড়া উপজেলা মডেল মসজিদের খতিব,বিশিষ্ঠ আলেমেদ্বীন মাওলানা আবদুল গফুর ।

আরো পড়ুন