শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২

বড়হাতিয়ায় রাতের আঁধারে পাহাড় কেটে সাবাড়!

প্রকাশিত : ১২:১২ অপরাহ্ন শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২

 

লোহাগাড়া(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের চাকফিরানী নতুন পাড়ায় রাতের আঁধারে পাহাড় কাটছে স্থানীয় এক প্রভাবশালী।

সরেজমিন পরিদর্শনে জানা যায়, উপজেলার বড়হাতিয়া চাকফিরানী নতুন পাড়ায় প্রশাসন থেকে পাহাড় কাটার ঘটনাকে আড়াল করতে কিছুদিন ধরে রাত ১২টার পর থেকে একটি স্কেভেটর দিয়ে মাটি কেটে ২/৩ টি ডেম্পার গাড়ি দিয়ে পাহাড়ের মাটি বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে যাচ্ছে।পাহাড়ের পার্শ্বে মুরগীর ফার্ম,এর পার্শ্বে তার পুরাতন বাড়ি রয়েছে। বড়হাতিয়া বিট কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে বাড়ি করার জন্য পাহাড় কাটছে স্হানীয় এলাকার বশির আহমদ।

এ বিষয়ে পাহাড় খেকো বশির আহমদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে, তার মেয়ে জানান,আমার বাবা একটি ছোট্ট বাড়ি করার জন্য পাহাড় কাটছে। আমাদের বিরুদ্ধে ষড়ষন্ত্র করছে এলাকাবাসীরা।

বশির আহমদের ছেলে রবিউল জানান,পাহাড় কেটে মাটিগুলো মসজিদে নিয়ে যাচ্ছে। রাতের অন্ধকারে মসজিদে মাটি নেওয়া হচ্ছে কেন? এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি যথাযথ উত্তর দিতে পারেনি।

বড়হাতিয়ার ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মুুহাম্মদ রফিক উদ্দিন সওদাগর জানান, পাহাড় কাটার বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে,পাহাড় কাটা অন্যায়।

বড়হাতিয়া বিট কর্মকর্তা লোকমান জানান,জায়গাটি বনবিভাগ এবং সরকারী খাস। পাহাড় কাটার বিষয়ে শুনার পর ঘটনাস্হলে গিয়েছি। তবে, তাদের সাথে আমার কোন আর্থিক লেনদেন হয়নি।

চুনতি বনরেঞ্জ কর্মকর্তা মুহাম্মদ শাহিনুর রহমান জানান,বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়েছি। বনবিভাগের দাগে জায়গা হলে পাহাড় খেকো বশির আহমদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্হা নিতে বড়হাতিয়া বনবিট কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছি।

উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) মুহাম্মদ শাহজাহান বলেন, পাহাড় কাটা সম্পূর্ণ অপরাধ। এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

আরো পড়ুন