রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

লোহাগাড়ায় ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবার উদ্যোগ নিলেন সমাজকর্মী আরমান বাবু

প্রকাশিত : ১:২২ অপরাহ্ন রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

 

লোহাগাড়া প্রতিনিধিঃ

জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের নির্বাহী সদস্য, লোহাগাড়া উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান, লোহাগাড়া ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা সমাজকর্মী আরমান বাবু রোমেল ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) থেকে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবা শুরু হচ্ছে বলে সমাজকর্মী মুহাম্মদ আরমান বাবু দেশবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন । লোহাগাড়া ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালের অভিজ্ঞ চিকিৎসক ও নার্সরা যে কোন রোগের ফ্রি চিকিৎসাসেবা প্রদান করবেন।

ইউনিয়ন ভিত্তিক ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার সময়সূচি :
মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চরম্বা ইউনিয়নের নোয়াবাজার ও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় এলাকায় এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত পদুয়া ইউনিয়নের আঁধার মানিক ও জঙ্গল পদুয়া এলাকায় অবস্থান করবে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার গাড়ি।

বুধবার (২২ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত কলাউজান ইউনিয়নের হিন্দুরহাট ও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় এলাকায় এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত পুটিবিলা ইউনিয়নের এম.চর হাট ও গৌড়স্থান নয়াবাজার এলাকায় অবস্থান করবে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার গাড়ি।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চুনতি ইউনিয়নের পানত্রিশা বীর বিক্রম জয়নুল আবেদীন উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ ও বনপুকুর পাড় এলাকায় এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বড়হাতিয়া ইউনিয়নের তিন পথের মাথা, হাটখোলা মুড়া ও ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় এলাকায় অবস্থান করবে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার গাড়ি।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত আধুনগর ইউনিয়নের সাতগড় এলাকা ও মছদিয়া এলাকায় এবং দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আমিরাবাদ ইউনিয়নের বাইনিয়ার হাট (বেইন্যারহাট), মল্লিক ছোবহান ও সুখছড়ি কালিবাড়ি এলাকায় অবস্থান করবে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার গাড়ি।

সমাজকর্মী আরমান বাবু রোমেল দেশবাংলাকে বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভীর অনুপ্রেরণায় লোহাগাড়া ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম শুরু করছি।ড. নদভী এমপিসহ, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল, লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌছিফ আহমেদ ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ হানিফ তাঁর এ উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন।

তিনি আরো জানান, লোহাগাড়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনেক রোগী করোনা ভাইরাসের কারণে উপজেলা সদরে এসে চিকিৎসাসেবা নিতে পারছেন না। তাদেরকে চিকিৎসাসেবার আওতায় আনার জন্য এ ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য হটলাইনও চালু করা হয়েছে। ইউনিয়ন ভিত্তিক চিকিৎসাসেবা পরও যতোদিন করোনার প্রভাব থাকবে ততোদিন উপজেলার যে কোন স্থান থেকে রোগী হটলাইনে ফোন করলে চিকিৎসক গাড়ি নিয়ে হাজির হবেন রোগির দরজায়।

সমাজকর্মী আরমান বাবু রোমেল বলেন, ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, শ্বাসকস্ট রোগীরা করোনাসহ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। বর্তমান বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে লোহাগাড়া ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসাসেবার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করুন। অন্যকে উৎসাহিত করুন ও সুস্থ থাকুন।

লোহাগাড়ার যেই কোন প্রান্ত থেকে ভ্রাম্যমাণ ফ্রি চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করতে হটলাইন (০১৭৬২-২১৭৬০৬, ০১৮৪৩-৪৯৯৫৫৬ ও ০৩০৩৪-৫৬৫১৩) নাম্বারে যোগাযোগ করুন। চিকিৎসাসেবা দিতে গাড়ি ও যন্ত্রপাতি নিয়ে চিকিৎসক হাজির হয়ে যাবে আপনার কাছে।

আরো পড়ুন