শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

লোহাগাড়ায় ছাত্রকে কোরআন রাখার রেহাল দিয়ে মারধরের ঘটনায় শিক্ষক আটক

প্রকাশিত : ২:৪১ অপরাহ্ন শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

রায়হান সিকদার,দেশবাংলাঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় বড়হাতিয়া মনুফকিরহাট বাজারে তানজিনুল মুবিন হেফজখানা ও এতিমখানার আবদুল্লাহ আল মুহিদ(১৩) নামে এক হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থীকে প্লাস্টিকের কোরআন শরীফ রাখার রেহাল দিয়ে মারধরের ঘটনায় জড়িত শিক্ষককে আটক করেছে থানা পুলিশ।

৯জুন সকালে ওসি মোঃ রাশেদুল ইসলামের নেতৃত্বে এসআই মাসুদ আলম সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্সদের সাথে নিয়ে মাদ্রাসা এলাকা থেকে তাকে আটক করে।

আটককৃত শিক্ষকের নাম হাফেজ মাওলানা আবদুল্লাহ (২৮)। সে উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের হাটখোলা মুড়া এলাকার মৃত বশির আহমদের পুত্র।

থানার ওসি মোঃ রাশেদুল ইসলাম জানান,উপজেলার বড়হাতিয়া হরিদার ঘোনা এলাকার প্রবাসী জসিম উদ্দিনের পুত্র আবদুল্লাহ আল মুহিত (১৩) উক্ত মাদ্রাসায় হেফজ বিভাগে পড়ত। মাদ্রাসায় পড়া শেষ করে ঘুমাচ্ছিল। অতর্কিতভাবে গত ২৬ মে মাদ্রাসার শিক্ষক আবদুল্লাহ কর্তৃক তাকে প্লাস্টিকের কোরআন শরীফ রাখার রেহাল দিয়ে জোরেশোরে বারি মারলে স্ট্যান্টটি ভেঙ্গে গিয়ে চোখে ছিটকে পড়ে যায়। চোখে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম হয়।এ বিষয়ে শিক্ষার্থীর মা রেনু আকতার বাদী হয়ে শিক্ষক আবদুল্লাহকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।রোববার সকালে তাকে আটক করে থানার হেফাজতে নিয়ে আসি।

শিক্ষার্থীর মা রেনু আকতার জানান, আমার ছেলেকে উক্ত মাদ্রাসায় ভর্তি করানোর পর থেকেই অন্যায় ভাবে কয়েকবার মারধর করেছে।আমার ছেলে ঘুমাচ্ছিল বলে গত ২৬ মে অন্যায়ভাবে প্লাস্টিকের কোরআন শরীফ রাখার রেহাল দিয়ে মারধর করলে ডান চোখে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। আমি কঠোরভাবে শিক্ষকের  শাস্তি দাবী করছি।

আরো পড়ুন