রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

চট্টগ্রাম-১৫ আসনে ৯জনের মধ্যে ড.নদভীসহ ৭জনের মনোনয়ন বৈধ,মোতালেব ও মিনহাজের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা

প্রকাশিত : ১:০১ পূর্বাহ্ন রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

রায়হান সিকদার, লোহাগাড়া প্রতিনিধিঃ

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদীয় আসন নং-২৯২, চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনের দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি এবং দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান এর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই করে এক শতাংশ সমর্থনকারী ভোটার তালিকায় গড়মিলের অভিযোগে তাদের মনোনয়ন বাতিল হয়।বিষয়টি সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ ইনামুন হাছান নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও বলেন, এক শতাংশ সমর্থনকারী ভোটার তালিকায় গড়মিলের কারণে তাদের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে তবে নির্বাচন কমিশনে আপিল করার সুযোগ রয়েছে। এই আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী এমপি সহ অপর ৬জনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা অন্য প্রার্থীরা হলেন, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির প্রার্থী (হাত ঘড়ি) অধ্যক্ষ মাওলানা সোলাইমান কাসেমি, জাতীয় পার্টি (জাপা)র প্রার্থী মোঃ ছালেম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির ফজলুল হক, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট এর প্রার্থী আলী হোসেন, ইসলামী ঐক্য এর প্রার্থী মাওলানা মোঃ হারুন, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোট এর প্রার্থী মোঃ জসিম উদ্দিন। স্বতন্ত্র প্রার্থী সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি বলেন, আমি নির্বাচন কমিশনে আপীল করব এবং আশাকরি আপীল এর মাধ্যমে আমার মনোনয়ন আবার ফিরে পাবো। আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান বলেন, আমি নির্বাচন কমিশনে আপীল করব এবং আশাকরি আপীল এর মাধ্যমে আমার মনোনয়ন আবার ফিরে পাবো। আমি ইতিমধ্যে আমার মনোনয়ন পত্রে সংযুক্তি হিসেবে দাখিলকৃত এক শতাংশ সমর্থনকারী ভোটার তালিকার সমর্থককে আটকে রাখার বিষয়েও নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছি, রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে জানিয়েছি এবং চট্টগ্রাম-১৫ আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যানকে জানিয়েছি।

আরো পড়ুন