রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজকের শিক্ষার্থীরাই হবে আগামীর স্মার্ট শিক্ষার্থীঃ ইউএনও শরীফ উল্যাহ

প্রকাশিত : ৮:১৭ পূর্বাহ্ন রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

রায়হান সিকদারঃ

প্রত্যেক মা-বাবাকে তাদের সন্তানদের পড়াশুনার বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। শুধু শিক্ষকরা পড়ালে হবে না, বাসায় আপনাদের অনেক বড় দায়িত্ব রয়েছে। সন্তানদেরকে মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) শরীফ উল্যাহ।

৪ অক্টোবর বিকালে উপজেলার অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পদুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিদ্যালয়ে মাঠে মা সমাবেশ, পুরস্কার বিতরণ ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

ইউএনও শরীফ উল্যাহ বলেছেন, প্রত্যেক মা-বাবার কর্তব্য হচ্ছে— তার সন্তানের মধ্যে জ্ঞানের প্রদীপটা প্রজ্বলিত করে দেওয়া। জ্ঞানের স্পৃহাটা জাগিয়ে দিতে হবে মা-বাবাকেই। আপনার সন্তানদের সামনে বিভিন্ন আইডল দেখাতে হবে। মা-বাবাকে স্বপ্ন দেখাতে হবে। মা-বাবারা দায়িত্ব সচেতন হলে আপনার সন্তান সঠিক পথের দেখা পাবে।

তিনি আরও বলেন, দু`জন বাচ্চা ইংরেজীতে বক্তব্যে দিয়ে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে। বাচ্চাদের কাছ থেকে ফিডব্যাক পাচ্ছি, শিক্ষার্থীরা এভাবে গড়ে উঠলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে। প্রাথমিক শিক্ষাকে মজবুত করতে হবে। শিক্ষকদের উপর নির্ভর করলে হবে না একজন শিক্ষার্থীকে মানুষের মত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে অভিভাবকদের বড় ভূমিকা রাখতে হবে। প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভর করলে হবেনা। আপনি (অভিভাবক-অভিভাবিকারা) সচেতন হোন। আপনার বাচ্চাটা যদি ভাল পর্যায়ে যেতে পারে মা-বাবারাই উপকারভোগী হবে। আপনার সন্তান আলোকিত মানুষ হলে শিক্ষকদের ভাল লাগা কাজ করবে। শিক্ষার্থীদেরকে নৈতিক শিক্ষা দিতে সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাকে ভূমিকা পালন করতে হবে।

 

 

ইউএনও শরীফ উল্যাহ আরও বলেন, মা বাবারা সচেতন হলে শিক্ষার্থীদের মধ্যকার সম্ভাবনাগুলো জাগ্রত হবে। আপনি স্বপ্ন দেখে ঘুমিয়ে থাকলে আপনার স্বপ্ন পূরণ হবে না। সন্তানের বাবা বিদেশ থেকে টাকা পাঠালে আপনি সবসময় মার্কেটে মার্কেটে ঘুরাফেরা করলে আপনার সন্তান কোনদিন মানুষ হবে না। সন্তানকে সবার আগে ডিসিপ্লিন শেখাতে হবে। ডিসিপ্লিন দিয়ে অনেক কিছু বুঝাতে পারে। বাচ্চাদের আচরণ, খেলাধুলা, পড়াশোনা সবক্ষেত্রেই ডিসিপ্লিন থাকলেই বাচ্চারা সঠিকভাবে বেড়ে উঠবে। বাচ্চারা কাদা মাটির মতো। আপনি যেভাবে গড়ে তুলবেন, আপনার সন্তান সেভাবে গড়ে উঠবে। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে স্মার্ট শিক্ষা সুনিশ্চিত করতে হবে। একক প্রচেষ্টায় স্মার্ট প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা সম্ভব না, এজন্য সকল শিক্ষক, অভিভাবক ও জনপ্রতিনিধিসহ সকলের সহযোগিতা থাকতে হবে৷ পরীক্ষায় পাস করার জন্য পড়াশুনা করলে হবে না, নৈতিক শিক্ষা অর্জন করে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। আপনাদের সন্তানরা সুশিক্ষিত হয়ে প্রত্যেকটি ঘর আলোকিত করুক এটাই কামনা।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনর রশিদ।

সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন বান্দরবান সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক মোরশেদ আলী ও সমাজসেবক মুজিবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুপন কান্তি নাথ।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ওয়াহিদা খানম ও আবদুর রশিদের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে
পদুয়া ওয়াডবারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) অলক দাশ,মাস্টার ফরিদুল ইসলাম, গিয়াস উদ্দিন, শাহ আলম,শাহজাহান, জকরিয়া সহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শেষে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কৃতি শিক্ষার্থী, গরীর মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ ও সংবর্ধিত অতিথি দেরকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

আরো পড়ুন