বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে মরণফাঁদ

প্রকাশিত : ৮:০২ পূর্বাহ্ন বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রতিদিনই ঘটছে দূর্ঘটনা:ঘটছে প্রাণহানী

রায়হান সিকদার
চট্টগ্রাম থেকে লোহাগাড়ার চুনতি পর্যন্ত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে ঝঁকিপূর্ণ বাঁক রয়েছে। আর সড়কের কোন কোন স্থানে দু’পাশ দখল করে দোকানপাটসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। সড়কের দু‘পাশ বিভিন্ন গাড়ির স্টেন্ড ও গাড়ির গ্যারেজের দখলে রয়েছে। সড়কটির কোন কোন স্থানে রাস্তা সরু ও অসংখ্য ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক, গতিরোধক থাকায় প্রতিনিয়ত যানজট সৃষ্টিসহ অহরহ দুর্ঘটনা ঘটছে। বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত মহাসড়কের পটিয়ার শান্তির হাট, মুন্সেফ বাজার, থানা মোড, ডাকবাংলা, বাস স্ট্যান্ড, দোহাজারী বাজার, সাতকানিয়ার কেরানীহাট ও লোহাগাড়ার বটতলীতে যানজট চরম আকার ধারণ করেছে। চট্টগ্রাম কর্ণফুলীর শাহ্ আমানত সেতুর দক্ষিণ পাশ থেকে লোহাগাড়া উপজেলা সদর পর্যন্ত ৬৬ কিলোমিটার দূরত্বের ২০টি পয়েন্টে সড়কের দু’পাশ দখল করে গড়ে উঠেছে গাড়ির স্ট্যান্ড, গ্যারেজ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। আর ৯টি পয়েন্টে বসে নিয়মিত হাটবাজার। এ অংশের সড়কে ৪৫টি স্থানে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক ও ২৭টি স্থানে অপরিকল্পিত স্পিডব্রেকার রয়েছে। ফলে সড়কটিতে রীতিমতো যানজট সৃষ্টিসহ দুর্ঘটনা সাধারণ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সড়কটির পটিয়া মইজ্জার টেক,,পটিয়া-আনোয়ারা ক্রসিং টেক, মনসার টেক, বাদামতল টেক, পটিয়া পোষ্ট অফিস টেক,গৈরালার টেক, আঞ্জুরহাট টেক, পটিয়া পোষ্ট অফিস টেক, আদালত গেইট মোড়, থানা মোড় ডাকবাংলা মোড়,, কমলমুন্সির হাট টেক মিলে ২০টি পয়েন্টে এবং চন্দনাইশ থেকে লোহাগাড়ার চুনতি পর্যন্ত ২০টির অধিক স্থানে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক রয়েছে। অন্যদিকে পটিয়ার শান্তির হাট, মুন্সেফ বাজার, থানা মোড, ডাকবাংলা মোড, বাসস্ট্যান্ড, রওশনহাট, বাগিচার হাট, কমল মুন্সির হাট, চক্রশালা, হাসিমপুর, আঞ্জুরহাট, দোহাজারী বাজার, মৌলভীর দোকান, সাতকানিয়ার কেরানীহাট, ঠাকুরদিঘী, লোহাগাড়া পদুয়া তেওয়ারীহাট, বটতলী, আধুনগর বাজার ও চুনতি মুন্সেফ বাজারে রাস্তার দু’পাশে যত্রতত্র গাড়ি রাখা, গাড়ির গ্যারেজ থাকার কারণে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজট দেখা দেয়। গাড়ির চালকরা জানান, এ মহাসড়কের দু’পাশে এতোবেশী গাড়ির স্ট্যান্ড ও গ্যারেজ গড়ে উঠেছে এবং সড়কটি এতো বেশী আঁকাবাকা যে প্রতিনিয়ত অত্যন্ত ঝুঁকির মধ্যে গাড়ি চালাতে হয়। বিশেষ করে পটিয়া, চন্দনাইশ, দোহাজারী ও লোহাগাড়ার বটতলীর ফুটপাতে অবৈধভাবে জীপ, মিনিবাস, মাইক্রোসহ বিভিন্ন যানবাহনের গাড়ির স্ট্যান্ড -গ্যারেজ এবং দোকান-পাট গড়ে উঠার কারণে যানজট ও দুর্ঘটনা লেগেই আছে। ফলে চট্টগ্রাম থেকে লোহাগাড়া পর্যন্ত ৬৬ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে দেড় ঘন্টারস্থলে তিন ঘন্টা সময় লেগে যায়। ফুটপাত দখল উচ্ছেদসহ মহাসড়কটি ৪ লেনে উন্নীত করা গেলে যানজট ও দূর্ঘটনা কমে যাবে।
দোহাজারী সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এমডি তোফায়েল মিয়া উক্ত প্রতিনিধিকে জানান, চট্টগ্রাম-কক্সবাজর মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীত করার প্রক্রিয়ার কাজ শুরু হয়েছে। সড়কটির বিভিন্নস্থানে অবৈধভাবে গড়ে উঠা দোকানপাট ও বিভিন্ন গাড়ির স্ট্যান্ড-গ্যারেজের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। সড়কটি চার লেনে উন্নীত হলে ঝুঁকিপূর্ণ বাকঁগুলো থাকবে না। সড়কের কাজ শুরু হলে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁকগুলো ঠিক করা হবে বলে তিনি জানান।

আরো পড়ুন