বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

চুনতিতে এক মহিলার পানের বরজ নষ্ট করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

প্রকাশিত : ৯:৩৮ পূর্বাহ্ন বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

লোহাগাড়া অফিসঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের রোশাইঙ্গা ঘোনা এলাকায় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা এক অসহায় মহিলার রুপনকৃত পানের বরজে বিষ দিয়ে নষ্ট করে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ ব্যাপারে ওই এলাকার মুহাম্মদ সৈয়দ আলমের স্ত্রী কুলসুমা বেগম(৩৮) বাদী হয়ে ঐ এলাকার লাল মিয়ার পুত্র হামিদুল্লাহ(৬০), হামিদুল্লাহর পুত্র শাহেদ(১৯), আবদুল আলমের পুত্র দিদার(২৮), মুহাম্মদ দেলোয়ার(২৩), আবদুর রহিমের পুত্র আবদুল হামিদ(৩৮) ও আবদুল হামিদের পুত্র মিনহাজ(১৮) কে বিবাদী করে লোহাগাড়া থানায় এক অভিযোগ দায়ের করেন।অভিযোগ সুত্রে প্রকাশ,উল্লেখিত বিবাদীগণের সাথে কুলসুমা বেগমের জায়গা-জমি নিয়া দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।গত ১৭এপ্রিল তাকে মারধর করায় তাদের বিরুদ্ধে  চট্টগ্রাম শিশু আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।যার মামলা নং ২৫১। তাং ২৩/০৪/১৮ইং। অভিযোগ সুত্রে আরো প্রকাশ,২নং আসামী গ্রেফতার হওয়ার পর থেকেই মামলা প্রত্যাহারের জন্য তাকে ভয়ভীতি ও হুমকি-ধমকি প্রদান করে আসছিল।গত ১৪ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে তার রুপনকৃত দুটি পানের বরজে বিষাক্ত ওষুধ দিয়া নষ্ট করে দেয়। এব্যাপারে কুলসুমা বেগম বলেন,বহু কষ্টে অন্যজনের কাছ থেকে ধার-দেনা নিয়ে  আমি দুটি পানের বরজ রোপন করেছি।কিন্তু প্রতিপক্ষরা তার রুপনকৃত পানের বরজ বিষাক্ত ওষুধ দিয়া নষ্ট করে ফেলে। এতে তার আনুমানিক লক্ষাধিক টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান।তিনি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে সুষ্ট বিচারের দাবী করেন।অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা চুনতি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই চন্দ্র বলেন, অভিযোগ হাতে পেয়েছি। পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে বলেও তিনি জানান।অন্যদিকে,অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করতে না পারায় তাদের বক্তব্যে নেওয়া সম্ভব হয়নি।

আরো পড়ুন