সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

রাতের আঁধারে কাটছে পাহাড়ঃ চরম্বায় পাহাড় ধ্বসে স্কেভেটর চালক গুরুত্বর আহত 

প্রকাশিত : ৭:৩২ পূর্বাহ্ন সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় রাতের অাঁধারে বিভিন্ন এলাকায় কাটা হচ্ছে পাহাড়।
আর এসব পাহাড় কাটায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন হারেছ আহমদ এবং দেলোয়ার। তারা পাহাড় কেটে রাতের আঁধারে মাটিগুলো বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করছে বলে জানা গেছে।

সরজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে জানা যায়,বিগত ৬/৭দিন ধরে উপজেলা প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দেওয়ার জন্য রাতের আঁধারে উপজেলার চরম্বা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডস্হ ওহেদার পাড়া এলাকায় ১টি স্কেভেটর দিয়ে কেটে ৫/৬ ডাম্পার গাড়ি করে বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ের মাটিগুলো বিক্রি করা হচ্ছে বলে স্হানীয়রা জানিয়েছেন।

গতকাল রাতের অাঁধারে স্কেভেটার দিয়ে পাহাড় কাটার সময় পাহাড়ের উপরের একটি অংশ ধ্বসে পড়ে ডাম্পার চালক মুহাম্মদ আবদুল গফুর (২৭) গুরুত্বর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। সে নাছির মুহাম্মদ পাড়ার আনজু মিয়ার পুত্র।

আহতের ভাই আবদুল মন্নান জানান, চরম্বা ওহেদার পাড়ায় পাহাড় কাটতে গিয়ে পাহাড়ের কিছু অংশ আমার ভাইয়ের গায়ে পড়লে সে মাটিতে পড়ে যায়। খবর পেয়ে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলার একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চমেকে প্রেরণ করেছেন। বর্তমানে আমার ভাইয়ের অবস্হা আশংকাজনক। তিনি পাহাড় কাটার সাথে জড়িতদের শাস্তি দাবী করেছেন।

চরম্বা ইউপির ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার মুহাম্মদ শওকত ওসমান জানান, আমার ওয়ার্ডে কিছুদিন ধরে পাহাড় খেকোরা বেপরোয়া হয়ে পড়েছে।কিছুদিন ধরে ওহেদার পাড়া এলাকায় হারেছ, নাছির, দেলোয়ারসহ আরও কয়েকজন পাহাড় খেকোরা রাতের অাঁধারে পাহাড় কেটে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করছে। পাহাড় কাটার ঘটনায় আবদুল গফুর নামে এক চালক গুরুত্বর আহত হয়ে বর্তমানে চমেকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

চরম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মৌলানা মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন জানান, পাহাড় কাটা অন্যায়। আমি পাহাড় কাটা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সবসময় কঠোর অবস্হানে রয়েছি। চরম্বার ওহেদার পাড়া এলাকায় রাতের আঁধারে পাহাড় কাটার ঘটনায় পাহাড় ধ্বসে পড়ে চালক আবদুল গফুর গুরুত্বর আহত হয়েছে। আমি বিষয়টি ইউএনও স্যারকে অবহিত করেছি।

লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মুুহাম্মদ আহসান হাবীব জিতু জানান,পাহাড় কাটা চরম অন্যায়। কোনভাবেই পাহাড় কাটা যাবেনা। রাতের আঁধারে পাহাড় কাটার ঘটনার বিষয়টি স্হানীয় চেয়ারম্যান আমাকে অবহিত করেছেন। পাহাড় খেকোদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্হা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

অন্যদিকে,পাহাড় খেকো মুহাম্মদ হারেছ জানান,আমি পাহাড় কাটছি, আমার সাথে কারা কারা সম্পৃক্ত আছে তাদের নাম আপনাকে জানাবো বলে কল কেটে দেন। অপরজন, দেলোয়ার জানান,আমি কোন ধরণের পাহাড় কাটছি। আমার নাম সেখানে জড়ানো হচ্ছে।

সংবাদ প্রেরকঃ রায়হান সিকদার,লোহাগাড়া,তারিখঃ ২২/০৩/২০২২ মোবাইল নং ০১৮১৭২৬৮৪৭০

আরো পড়ুন