সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

পদুয়া এসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ে সভাপতির দায়িত্ব নিলেন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার জাবেদ করিম

প্রকাশিত : ৬:৩৭ পূর্বাহ্ন সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

 

রায়হান সিকদারঃ

দক্ষিণ চট্টগ্রামের অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পদুয়া এসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি হিসেবে মনোনীত হয়েছেন পদুয়া ইউপির বার বার নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান প্রবীণ আইনজীবি এডভোকেট হুমায়ুন কবির রাসেলের ভাতিজা, প্রবীণ শিক্ষাবিদ মরহুম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর সুযোগ্য পুত্র সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার মুুহাম্মদ জাবেদ করিম।

তিনি দায়িত্ব পাওয়ার পর ২০ মার্চ রোববার সকালে পদুয়া এসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ে আগমণ করলে বিদ্যালয়ের নব নির্বাচিত সভাপতি জাবেদ করিমকে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পদুয়া এসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মাস্টার মোছলেহ উদ্দিন।

এসময় বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা বৃন্দ,পদুয়া ইউপির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ হারুনুর রশিদ প্রকাশ আর্মি হারুন,লোহাগাড়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম,লোহাগাড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি আকতার হোসেন ফরিদ,পদুয়া ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার মুহাম্মদ কাউছার উদ্দিন, লিলি ফ্যাশনের স্বত্বাধিকারী মুহাম্মদ মাঈনুদ্দিন চৌধুরী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দরা উপস্হিত ছিলেন।

বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার মুুহাম্মদ জাবেদ করিম শিক্ষক-শিক্ষিকার দের সাথে বিদ্যালয়ের শিক্ষার মানোন্নয়নের বিষয়ে কথা বলেন। পরে তিনি বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেনীকক্ষে শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন। শিক্ষার্থীদেকে নৈতিক শিক্ষায় সুশিক্ষিত হয়ে দেশ ও জাতি গড়ার জন্য পরামর্শ দেন। একজন আদর্শিক মানুষ হিসেবে সকল শিক্ষার্থীরা আগামীতে মেধার বিকাশে অবদান রাখবে।

পদুয়া এসিএম উচ্চ বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার মুুহাম্মদ জাবেদ করিম জানান, তিনি প্রথমে মহান আল্লাহর দরবারে শোকরিয়া জানান এতবড় একটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব গ্রহণ করায়। তিনি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মাননীয় সাংসদ প্রফেসর ড.আবু রেজা নদভী,কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী,নারী জাগরণের অগ্রদূত রিজিয়া রেজা আপা, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল মহোদয়, মাননীয় শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান মহোদয়ের প্রতি।ওনারা আমাকে অনুপ্রাণিত করেছেন।
তিনি আরও জানান, আমি বিদ্যালয়ের দায়িত্ব নিয়েছে আমি চাই তোমরা ভালভাবে লেখাপড়া করতে হবে। আদর্শিক জাতি হতে হবে। এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান আরও বাড়াতে হবে। শিক্ষার মানোন্নয়ন এবং অবকাঠামোগত উন্নয়নে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে সবসময় নিয়োজিত রাখবো ইনশাল্লাহ। মাননীয় এমপি মহোদয়ের সাথে পরামর্শ করে এ বিদ্যালয়ের যেসব অবহেলিত ভবন রয়েছে বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের জন্য আপ্রান চেষ্ঠা চালিয়ে যাবো। আমি চাই এ বিদ্যালয় দক্ষিণ চট্টগ্রাম নয়,পুরো বাংলাদেশে একটা সেরা বিদ্যাপিঠ হিসেবে গড়ে উঠবে। বিদ্যালয়ের শিক্ষার ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন পরিবর্তনে কাজ করতে চাই। অবকাঠামোগত সমস্যা দূরীকরণের জন্য চেষ্ঠা করবো। শিক্ষার্থীদেরকে ভালভাবে গাইড করতে হবে। কোন ধরণের আড্ডা দেওয়া সহ্য করা যাবেনা। শিক্ষকরাই মানুষ গড়ার কারিগর। শিক্ষার্থীদের কে ভালভাবে পড়াশুনায় মনোনিবেশ বাড়াতে হবে। এ বিদ্যালয়ের ফলাফলের মান আরও বাড়াতে হবে। আমরা কিছুটা পিছিয়ে রয়েছি। আমি যতদিন দায়িত্বে থাকবো শিক্ষকদেরকে সম্মান দিয়ে সকলের সহযোগীতা নিয়ে কাজ করবো।
তিনি সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা , অভিভাবক-অভিভাবিকাবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি,সাংবাদিক ও পদুয়ার সকল শ্রেনীর মানুষের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

আরো পড়ুন