বুধবার, ২৯ জুন ২০২২

দুটি পা`হারা এক প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার দিলেন সমাজকর্মী আরমান বাবু

প্রকাশিত : ১০:৪৭ অপরাহ্ন বুধবার, ২৯ জুন ২০২২

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

 

মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন। তার পিতার নাম আবুল হোসেন। তার বাড়ী চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের জিন্নাত আলী পাড়ায়।তার সংসারে ২ মেয়ে ১ ছেলে। সবাই লেখাপড়ায় অধ্যায়নরত। বিগত ২মাস পুর্বে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় জসিম উদ্দিন দুটি পা হারান।এরপর থেকে সে শারীরিক প্রতিবন্ধী। চলাফেরা করতে খুব বেশী অক্ষম। তার কোন ভিটে-বাড়ি নেই। সংসারে কোন আয়-উপার্জনের কোন সুযোগ না থাকায় অতি কষ্ঠে স্ত্রী,ছেলেমেয়ে কে নিয়ে দিনাতিপাত করছে।

তার দুটি পা হারানো বিষয় এবং তার পরিবারের অসহায়ত্বের বিষয়ে জানতে পারেন জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের নির্বাহী সদস্য,লোহাগাড়া উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান, সমাজকর্মী মুহাম্মদ আরমান বাবু রোমেল।

১৭ ফেব্রুয়ারি সকালে চট্টগ্রাম-১৫ সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য,উন্নয়নের সফল কান্ডারী,বিশ্ববরেণ্য আলেমেদ্বীন ও গবেষক প্রফেসর ড.আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপির নির্দেশে দু`পা হারানো শারিরীক প্রতিবন্ধী জসিমের ঘরে গিয়ে তাকে একটি হুইল চেয়ার ও কম্বল সামগ্রী প্রদান করেন জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের নির্বাহী সদস্য,লোহাগাড়া উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান, সমাজকর্মী মুহাম্মদ আরমান বাবু রোমেল।

এসময় লোহাগাড়া প্রেস ক্লাবের ক্রীড়া ও সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক মিনহাজ মিজবাহ উদ্দিন,শ্রমিকনেতা মুহাম্মদ রাসেল উপস্হিত ছিলেন।

সমাজকর্মী মুহাম্মদ আরমান বাবু রোমেল জানান,অসহায় মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারলে খুব বেশী সৌভাগ্যবান মনে করি। চেষ্ঠা করি এলাকার অসহায় ও হত দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে। পদুয়ার জিন্নাত আলী পাড়ার মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন। বিগত কয়েকমাস পুর্বে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ২টি পা হারান। বিষয়টি জানতে পারলে মাননীয় এমপি মহোদয়ের নির্দেশে তার বাড়ীতে গিয়ে হুইল চেয়ার কম্বল প্রদান করেছি । সমাজসেবা অফিসারের সাথে কথা হয়েছি । শীঘ্রই তাকে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড ব্যবস্হা গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি।

অসহায় প্রতিবন্ধী হুইল চেয়ার পেয়ে মহা খুশী। তার পরিবারের সদস্যরা মাননীয় এমপি মহোদয় ও সমাজকর্মী মুহাম্মদ আরমান বাবু রোমেলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

আরো পড়ুন