মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

লোহাগাড়ার ৬ ইউপি নির্বাচনঃ ২৭জনের প্রার্থীর মধ্যে কার কার ভাগ্যে নৌকার টিকেট?

প্রকাশিত : ১১:১১ পূর্বাহ্ন মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

 

লোহাগাড়া(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার ৬ টি ইউনিয়ন পরিষদ ( ইউপি ) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান ২৭জন।

বিষয়টি ঢাকা থেকে লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন হিরু।

তিনি বলেন, যারা মনোনয়ন দৌড়ে রয়েছেন তাঁরা সবাই দক্ষ ও পরিক্ষিত। প্রত্যেকই নৌকা নিয়ে নির্বাচন করে বিজয় লাভ করার যোগ্যতা রাখে। দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে যোগ্য মনে করবেন, তাকেই মনোনয়ন দেবেন।

তফসিল ঘোষণার পর স্ব স্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রতীক নৌকা পেতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ দেখা যাচ্ছে। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দলের কেন্দ্রীয় – জেলা কমিটির নেতাদের সঙ্গে জোর লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন।

বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দলটির কোন প্রার্থী না থাকলেও আওয়ামীলীগ থেকে এই ৬ ইউনিয়নে নৌকার প্রতীকের প্রার্থী ২৬ জন। তারা সকলেই দলীয় মনোনয়ন পেতে চান।

এদিকে, দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচনে প্রার্থী হলে বহিষ্কারের কথা মাথায় নিয়েও কোন কোন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে থাকার গুঞ্জন রয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকালে চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শেষ হয়েছে।

ওই দিন চেয়ারম্যান পদে বড়হাতিয়া ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৩ জন। তাঁরা হলেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের উপ- দপ্তর সম্পাদক বিজয় কুমার বড়ুয়া ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান চৌধুরী দুলাল ও আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম।

পুটিবিলা ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ২জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ার হাজী মোহাম্মদ ইউনুছ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক।

চরম্বা ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৫ জন।তারা হলেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান মাস্টার শফিকুর রহমান সাধারণ সম্পাদক আসহাব উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সাইফুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা মুসা কোম্পানি, ও ইউনিয়ন তাঁতীলগীর সভাপতি মাওলানা হেলাল উদ্দিন।

চুনতি ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৩জন। তারা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন জনু কোম্পানি, উপজেলা যুগ্ন যুবলীগের আহবায়ক ফজলে এলাহী আরজু, ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাজ্জাদ হোসাইন মিনহাজ।

কলাউজান ইউনিয়ন থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৯ জন। তারা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শ্রীনিবাস দাশ সাগর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাশেম মিয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এস.এম আব্দুল জব্বার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী ইছহাক মিয়া, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মোহাম্মদ এয়াছিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মাসুদ করিম, আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আমিন ও আওয়ামী লীগ নেতা মাওলানা আব্দুল সবুর।

পদুয়া ইউনিয়নে থেকে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৫ জন। তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবি লীগের সহ-সভাপতি আকতার কামাল পারভেজ, উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হারুনুর রশিদ, উপজেলা তাঁতী লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুল ইসলাম চৌধুরী, আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য রিটু দাশ বাবলু ও উপজেলা তাঁতী লীগের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম।

আগামী ১৯ শে নভেম্বর গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভা হবে বলে জনা গেছে । সেখানেই চুড়ান্ত হবে কারা পাচ্ছের নৌকার টিকেট। ইতিমধ্যে দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।

চতুর্থ ধাপে নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৫ নভেম্বর। বাছাই ২৯ নভেম্বর। আপিল ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ৩ ডিসেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর। আর ভোটগ্রহন ২৩ ডিসেম্বর।

আরো পড়ুন