বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

সেই বিধবা ছকিনা আকতারের পাশে ইউএনও জিতু

প্রকাশিত : ১০:১০ পূর্বাহ্ন বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

 

লোহাগাড়া প্রতিনিধিঃ

বিধবা ছকিনা আকতার। তার স্বামীর নাম মৃত মোবারক আলী। তার বাড়ি উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের উত্তর পাড়া এলাকায়। তার সংসারে রয়েছে ২ ছেলে। স্বামী মারা যাওয়ার পর যে ঘরটা ছিল সেটিই কিছুদিন পুর্বে ভারী বর্ষণে ভেঙ্গে গেছে।

তাদের এমন দুঃখ দুর্দশা দেখে ভাঙ্গা ঘরটি পরিদর্শন করেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মুুহাম্মদ আহসান হাবীব জিতু, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) মুুহাম্মদ মাহবুব আলম শাওন ভুঁইয়া ও চুনতি ইউপির চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জয়নুল আবেদীন জনু কোম্পানী।

তার ভাঙ্গাঘরের দৃশ্যটি দেখে ইউএনও আবেগ আপ্লুত হন। বিধবা ছকিনাকে একটি ঘর করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

১২ সেপ্টেম্বর সকালে সেই বিধবা ছকিনার দুর্দশা দেখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ প্রদান করেন লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মুহাম্মদ আহসান হাবীব জিতু।

এসময় সাথে ছিলেন লোহাগাড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) মুহাম্মদ মাহবুব আলম শাওন ভুঁইয়া।

ইউএনও আহসান হাবীব জিতু জানান, সাংবাদিক ভাই দেখেন আমরা সরকারী কর্মকর্তা। আমাদের কাজ জনগণের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে এলাকায় অসহায় ও হত দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানো। চেষ্ঠা করে যাচ্ছি লোহাগাড়ার বিভিন্ন এলাকার অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করতে। চুনতির বিধবা ছকিনা অনেক বেশী অসহায়। তাকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ প্রদান করেছি। থাকার মত একটি ঘর দেওয়ার কথাও জানান।

তিনি আরও জানান, লোহাগাড়ায় যোগদান করার পর থেকেই এলাকার শিক্ষা, ক্রীড়া,সংস্কৃতি,আইন শৃঙ্খলার উন্নয়ন ও বিভিন্ন এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি।

তাই এই উপজেলায় ততদিন থাকবো ততদিন একজন জনবান্ধব ইউএনও হিসেবে মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

আরো পড়ুন