মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সাতকানিয়ায় মাঠে থাকার ঘোষনা দিলেন আওয়ামীলীগ-বিএনপি

প্রকাশিত : ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়

শহীদুল ইসলাম বাবর
২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে রাজপথে যে কোন সহিংসতা ঠেকাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সর্তক অবস্থানে থাকবে সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। রায়কে কেন্দ্র করে কোন গোষ্টি যাতে রাজপথে কোন বিশৃঙ্খলা করতে না পারে তার জন্যই এ অবস্থান। উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রাজপথে অবস্থানের জন্য যুবলীগ নেতাকর্মীদেরও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানালেন উত্তর সাতকানিয়া যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী। তবে সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল হোসেন বলেছেন, কে কোন অবস্থায় থাকবে এটা আমার জানা নেই। কেহ যাতে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা করতে না পারে সে জন্য আমরা সর্তক অবস্থানে আছি। সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের।
এর আগে যুদ্ধাপরাধ মামলার রায়কে ঘিরে সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে সড়ক পাহারা দিয়েছিল যুবলীগ। অপরদিকে বিএনপির সাতকানিয়া উপজেলা সভাপতি অধ্যাপক শেখ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, ২১ আগষ্ট গ্রেনেন্ড হামলা মামলায় ষডযন্ত্রমূলক ভাবে বিএনপিকে নেতৃত্ব শূন্য করার লক্ষ্যেই আমাদের সিনিয়ন ভাইস চেয়ারম্যানসহ গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের আসামী করা হয়েছে। আশা করি আমাদের নেতারা এ মিথ্যা মামলা থেকে বেকসুর খালাস পাবেন। যদি অন্যায় ভাবে সাজা দেওয়া হয় তাহলে অবশ্যই আমরা রাজপথে প্রতিবাদ জানাবো। আওয়ামীলীগের দলীয় সূত্র জানায়, ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা মামলার আসামীর তালিকায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ গুরুত্বপূর্ণ নেতারা আসামীর তালিকায় আছেন। তাদের সাজা হলে বিএনপি কিংবা প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্টি সহিংসতা করতে পারে এমন আশংকায় দলের নেতারা তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে চট্টগ্রামের কক্সবাজার মহাসড়কের কেরানীহাট,মিঠাদিঘী ও মৌলভীর দোকানে দলের নেতা কর্মীরা অবস্থান নিবে। রায়কে কেন্দ্র করে কেহ বিশৃঙ্খলা করতে চাইলেই প্রতিহত করা হবে। সাতকানিয়া আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাসহ দলের সিনিয়র নেতাদের হত্যা করতেই বিএনপি জামায়াত এই গ্রেনেড হামলা করেছিল। তাই এ মামলায় সম্পূরক তদন্তে সকলের নাম আসছে। তাদের বিচারই চলছে। এবং আজ রায় হবে। আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কেহ বিশৃঙ্খলা করতে চাইলেই আমরা প্রতিহত করার জন্য তিনটি পয়েন্টে সর্তক অবস্থানে থাকবে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রফিকুল হোসেন বলেন, কে কোন অবস্থানে থাকবে এটা আমার বিষয় না আমার জানাও নেই। সাতকানিয়ার কোন স্থানে যাতে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা করতে না পারে সে জন্য আমরা সর্তক অবস্থানে আছি, থাকব।

আরো পড়ুন