মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

সাতকানিয়ায় প্রথম বারের মত সাঁতার প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত : ২:২১ অপরাহ্ন মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

উপভোগ করতে দর্শকদের ভীড়

শহীদুল ইসলাম বাবর
দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে সাঁতার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলায় প্রথম বারের মত অনুষ্ঠিত হওয়া এই প্রতিযোগিতা দেখতে সাতকানিয়ার পৌর সদরের কানু পুকুরের চার পাশে ছিল দর্শকদের উপছে পড়া ভীড়। দর্শকদের মধ্যে শিশু-কিশোর, যুবক ও বৃদ্ধি লোকের পাশপাশি নারীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। ভীড় এত বেশি ছিল যে পুকুরের দুই প্রাম সড়কে যনজটের সৃষ্টি হয়। দর্শকদের উপছে পড়া ভীড় ও মুর্হুমুহু করতালিতে সৃষ্টি হয় এক আনন্দঘন পরিবেশ।


শুক্রবার দুপুরে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন বিশ্বাস। এসময় সাতকানিয়ার সহকারী কমিশনার (ভূমী) আরাফাত সিদ্দিকী, সাতকানিয়া পৌর মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের, থানার অফিসার ইনর্চাজ প্রিটন সরকার, পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউল হক চৌধুরীসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। দুটি বিভাগে অনুষ্ঠিত এই সাঁতার প্রতিযোগিতায় (ক) গ্রæপে আবু মনছুর, রাকিব,মোহাম্মদ জিসান ও (খ) গ্রæপে কবির মোহাম্মদ হোসেন,আজগর হোসেন এবং সিরাজুল ইসলাম বিজয়ী হয়। প্রতিযোগিতা শেষে ইউএনও মিল্টন বিশ্বাস বলেন, আমরা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে প্রথম বারের মত সাঁতার প্রতিযোগিতা আয়োজন করলাম। বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবসসহ বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে অন্যান্য আয়োজনের পাশপাশি নিয়মিত সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করার চেষ্টা করবো। সাতকানিয়ার সহকারী কমিশনার (ভ‚মী) আরাফাত সিদ্দিকী বলেন, গত কয়েকদিন আগে আমরা সরকারী সম্পত্তি কানু পুকুর ভ‚মী খেকোদের হাত থেকে দখলে নিয়েছি। এখন আমরা এই পুকুুরে নিয়মিত সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পারব। অবৈধ দখলদারদের হুশিয়ার করে তিনি বলেন, কানু পুকুর কোন ব্যক্তি বা গোষ্টির নয়, এটি সরকারী সম্পত্তি। সরকারী সম্পত্তি অবৈধ দখলের চেষ্টা করলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এই পুকুর সব সময় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য স্থানীয়দের অনুরোধ করেন তিনি। সাঁতার প্রতিযোগিতা দেখতে যাওয়া এক দর্শকের নাম আবুল কাসেম। তিনি অনুভ‚তি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, সাঁতার প্রতিযোগিতা আমরা টেলিভিশনে দেখেছি, বাস্তবে দেখার সুযোগ হয়নি। আজতে সাঁতার প্রতিযোগিতা দেখে আসলেই ভাল লাগলো। এই রকম প্রতিযোতিা বার বার করার দাবী জানান এই দর্শক।

 

 

আরো পড়ুন