মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

পদুয়ায় নৌকা প্রতীকের সমর্থনে সম্মিলীত নাগরিক কমিটির উদ্যোগে জনসমাবেশ 

প্রকাশিত : ১:৩৮ অপরাহ্ন মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

 

লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ 

আসন্ন পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ (নৌকা প্রতীক) মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হারুনর রশীদের সমর্থনে নির্বাচনী জনসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে পদুয়া বাজারের হামিদ মার্কেটের সামনে সম্মিলীত নাগরিক কমিটির উদ্যোগে এ জনসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

পদুয়া ইউনিয়ন নাগরিক কমিটির চেয়ারম্যান ও পদুয়া ইউপির বার বার নির্বাচিত সাবেক সফল চেয়ারম্যান এডভোকেট হুমায়ুন কবির রাসেলের সভাপতিত্বে সমাবেশের প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আকতার হোসেন ফরিদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শ্রী নিবাস দাশ সাগর, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ.এম গণি সম্রাট, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী যুবলীগের তথ্যও গবেষণা সম্পাদক মিয়া মুহাম্মদ শাহজাহান, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক জহির উদ্দিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রিদুয়ানুল হক সুজন, উপজেলা তাঁতীলীগের সদস্য সচিব আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক জামিল উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আসিফুর রহমান, ইন্জিনিয়ার জাবেদ করিম, পদুয়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি কাজী শের আলী
সহ আরো অনেকেই।

বক্তারা বলেন, নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক,আর্মি হারুন বঙ্গবন্ধু কন্যার মনোনীত,ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার মনোনীত, সাংসদ নদভী এবং কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল ইসলাম আমিনের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী।
আগামীতে অবহেলিত পদুয়ার উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকেই ভোট দিয়ে এলাকার উন্নয়ন করার সুযোগ দিবেন। অন্য কাউকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করলে সরকারি বরাদ্দ থেকে বঞ্চিত হবে পদুয়াবাসী। আবারো পদুয়া অবহেলিত হয়ে পড়ে থাকবে। দয়া করে নৌকার বিরোধিতা করে কেউ পদুয়ার উন্নয়নে বাঁধাগ্রস্ত করবেননা। নৌকায় ভোট দিলে দেশে কিভাবে উন্নয়ন হয় সেইটা আপনারা বাড়িতে গিয়ে সবাইকে বুঝান।

বক্তারা আরো বলেন, হারুন একজন ভাল মানুষ, একজন ভাল মানুষ চেয়ারম্যান হলে এলাকার যুব সমাজ ভাল হবে। এলাকায় কিশোর গ্যাং এবং মাদকাসক্তা সৃষ্টি হবেনা। আগামীর প্রজন্ম সঠিক পথে পরিচালিত হবে
আপনারা যদি নৌকায় ভোট দিয়ে আর্মি হারুনকে জয়যুক্ত করেন তাহলে উন্নয়নের দিকদিয়ে ৬ মাসের মধ্যে পদুয়ার চেহারা পাল্টে যাবে। পদুয়ায় অনেকদিন পর ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হবে। নির্ভয়ে মানুষ ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে তাদের সুখ দুঃখের কথা চেয়ারম্যানকে বুঝাতে পারবে। ভয় নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে যেতে হবেনা। আর্মি হারুন টানা ৩০ বছর সেনাবাহিনীতে চাকরি করে দেশের জন্য কাজ করেছেন। নির্বাচিত হলে তার চেয়ে কেউ পদুয়ার উন্নয়ন করতে পারবেনা এবং পদুয়া বাসীর সেবা করতে পারবেনা।

এছাড়াও জনসমাবেশে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, লোহাগাড়া যুব ঐক্য পরিষদের সভাপতি সরোয়ার কামাল, মোস্তাফিজুর রহমান কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি হামিদ হোসেন রবিন সহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অংগ সংগঠনের শতশত নেতৃবৃন্দ এবং নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন