রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ছাত্রলীগ নেতা মামুনের উপর হামলায় মামলা হলেও আটক হয়নি আসামীরাঃ পুলিশ বলছে, খোঁজা হচ্ছে আসামীদের 

প্রকাশিত : ১২:১৭ পূর্বাহ্ন রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

লোহাগাড়া(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া সদরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ নেতা মামুনুর রশিদ(২২) মারধর করে রক্তাক্ত জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। গত ৯ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ১টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটেছে। তিনি উপজেলার আধুনগর দক্ষিণ হরিনা পাঠার পাড়া এলাকার আবুল হাশেমের পুত্র।এ ঘটনায় আহত মামুনের পিতা আবুল হাশেম বাদী হয়ে ওই এলাকার তানভির হাসান ফাহিম, রাকিবসহ ৫জনকে আসামী করে এবং ১০/১২জনকে অজ্ঞাত নামা আসামী করে লোহাগাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং ০৭, ১০/১২/২০২৪ইং।মামলার পর তিন থেকে চারদিন পার হলেই আসামীদের আটক করতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে, আমরা আসামীদের খুঁজতেছি। অভিযান অব্যাহত আছে।মামলার এজাহারে বলা হয়, গত ৮ ফেব্রুআরি দুপুর ১টার দিকে দু`জন অজ্ঞাত নামা একজন পুরুষ,একজন মহিলা বাইক যোগে চুনতি চাম্বিলেক থেকে ফেরার পথে তাদের পথ গতিরোধ করে উল্লেখিত আসামীরা। দুজনকে বাঁচানোর জন্য জয়নাল, মহি উদ্দিন,আমির হোসেন ও আবদুর রহিমের সহায়তায় কেড়ে নেওয়া বাইকের চাবিটি তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে আসামীগণ তাদেরকে খুঁজাখুঁজি করে গালিগালাজ করে। স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিরা বিষয়টি সমাধানের জন্য গত ৯ ফেব্রুয়ারি সিদ্ধান্ত নেয়।ওইদিন দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে লোহাগাড়া সদরে একটি টার্ফ থেকে খেলাধুলা শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে উল্লেখিত আসামীগণ ছাত্রলীগ নেতা মামুনুর রশিদকে গাছের লাঠি, চুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকে। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা আশংকাজনক দেখতে পেলে চমেকে প্রেরণ করে। বর্তমানে ছাত্রলীগ নেতা মামুনুর রশিদ চমেকে ২৬নং ওয়ার্ডের ৬৫নং সিটে ভর্তি রয়েছে।মামুনের পিতা আবুল হাশেম জানান,প্রতিপক্ষকরা আমার ছেলেকে এলোপাতাড়ি মারধর করেছে। দ্রুত জড়িতদের গ্রেফতারের জন্য সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানান তিনি।লোহাগাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তারেকুল ইসলাম ইমন জানান, মামুন খুব ভাল ছেলে। তাকে অন্যায়ভাবে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। আমরা জড়িতদের দ্রুত বিচার কামনা করছি।লোহাগাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদুর রহমান রিয়াদ জানান, মামুন ছাত্রলীগের কর্মী। তাকে অন্যায়ভাবে হামলা করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনের কাছে আসামীদেরকে আইনের আওতায় আনার জোর দাবী করছি।লোহাগাড়া থানার ওসি মোঃ রাশেদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদেরকে আটকের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

আরো পড়ুন