শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

এলাকার ছেলে ডাক্তার হয়েছে, গ্রামে এসেছে, আমরা চিকিৎসা সেবা পেয়েছি,,ডাক্তার হিসেবে সালমান অমায়িক ও ভদ্র 

প্রকাশিত : ২:৪৮ অপরাহ্ন শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

 

রায়হান সিকদার,দেশবাংলাঃ

ছোটকালে স্বপ্ন থাকে চিকিৎসক হয়ে মানবসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে। এলাকার অসহায়,দুঃখী মানুষের সেবা করতে। ছোট কালের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে নিজের স্বপ্ন কাজে লাগিয়ে দিনাজপুর সরকারি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএম পাস করেছেন ডাঃ আয়াতুল্লাহ মুুহাম্মদ সালমান। তার বাড়ি লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়ার ৮নং ওয়ার্ড ধলিবিলা গ্রামে। তার বাবার নাম হাজি মোবারক আহমদ। সালমান এখন ডাক্তারি পাস করে ডাক্তার হয়েছেন। তার আবেগ অনুভূতি কাজ করছে ছোট কালে স্বপ্ন দেখা মানুষের জন্য। তাই এলাকায় এসেছে দিয়েছে চিকিৎসা সেবা। পদুয়ায় সাধারণ মানুষকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা ও বিনামুল্যে ওষধ দিয়েছেন ডাঃ আয়াতুল্লাহ মুুহাম্মদ সালমান।১৩ জানুয়ারি দিনব্যাপী ধলিবিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এলাকার মানুষ কে বিনামুল্যে ঔষধ ও ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছেন অত্র এলাকার সন্তান ডাঃ আয়াতুল্লাহ মুুহাম্মদ সালমান।এলাকার ছেলে ডাক্তার হয়েছে এলাকায় এসেছে রোগীরা চিকিৎসা সেবা খুশিও হয়েছেন।এলাকার কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, আমাদের এলাকার ছেলে ডাঃ সালমান। আমরা চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছি। আমাদের এলাকায় অঝোপড়া গাঁয়ে অতীতে তেমন কোন ভাল ডাক্তার ছিলনা। তাই সালমান থেকে চিকিৎসা সেবা নিতে পেরে ভাল লাগছে। সালমান ডাক্তার হিসেবে অনেক অমায়িক ও ভদ্র।ধলিবিলা গ্রামের সন্তান ডাঃ আয়াতুল্লাহ মোঃ সালমান তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে উক্ত প্রতিবেদককে জানান,আলহামদুলিল্লাহ,মহান আল্লাহর দরবারে লাখো কোটি শোকরিয়া। প্রথম বার জন্মভূমিতে,ধন্যবাদ পদুয়া বাসিকে বিশেষভাবে ধলিবিলা-আধারমানিক বাসিকে(প্রায়ই ৫০০ জন)আমার উপর বিশ্বাস রেখে সকাল ১০টা থেকে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে চিকিৎসা নেয়ার জন্য।এই সব কিছুর পিছনে ছিলেন আমার বটবৃক্ষ বাবা। আমার জন্য আমার বাবার জন্য পরিবারের জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করছি। আমি বার বার ফিরে আসবো আপন নীড়ে গ্রামের অসহায় মানুষের সেবা করতে।

আরো পড়ুন